শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ০৯:৫৫ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
Logo চতুর্থ চীন আন্তর্জাতিক ভোগ্যপণ্য মেলা চলবে ১৮ এপ্রিল Logo ২১৫ টি দেশ ক্যান্টন মেলা কুয়াং চৌতে নিবন্ধন করেছেন Logo রামগঞ্জে নানান আয়োজনে পহেলা বৈশাখ পালিত Logo সেপটিক ট্যাংকে নেমে প্রাণ গেল বাড়ির মালিকসহ পরিচ্ছন্নতাকর্মীর Logo শোক সংবাদ: বীর মুক্তিযোদ্ধা লিয়াকত আলী পাইনের ইন্তেকাল Logo দখলকৃত জায়গা ছেড়ে দিতে বলায় দুই ভাইকে মারধর, মারাত্মক জখম Logo চীন- ভিয়েতনাম একে অপরের ‘কমরেড ও ভাই’- প্রেসিডেন্ট সি Logo জাতিসংঘের মৌলিক নীতিকে চীন বিভিন্ন ইস্যু মোকাবিলার ভিত্তি বলে বিশ্বাস করে Logo ইইউ ব্র্যান্ডি নিয়ে চীনের এন্টি-ডাম্পিং তদন্ত দেশীয় শিল্পের আবেদনের প্রেক্ষাপটে শুরু হয় Logo রামগঞ্জে সততা ফাউন্ডেশনের ঈদ উপহার বিতরণ
নোটিশঃ
যে কোন বিভাগে প্রতি জেলা, থানা/উপজেলা এবং বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে ‘bdpressnews.com ’ জাতীয় পত্রিকায় সাংবাদিক নিয়োগ ২০২৩ চলছে। বিগত ১ বছর ধরে ‘bdpressnews.com’ অনলাইন সংস্করণ পাঠক সমাজে জনপ্রিয়তা পেয়েছে। পাঠকের সংখ্যায় প্রতিনিয়ত যোগ হচ্ছে নানা শ্রেণি-পেশার হাজারো মানুষ। বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশনে প্রতিষ্ঠানটিতে কাজ করছে তরুণ, অভিজ্ঞ ও আন্তরিক সংবাদকর্মীরা। এরই ধারাবাহিকতায় ‘bdpressnews.com‘ পত্রিকায় নিয়োগ প্রক্রিয়ার এ ধাপ

ছংছিং শহরের বি’শান অঞ্চল শৈল্পিক গ্রামে রুপান্তরিত হয়েছে 

জিনিয়া: / ৫৭ Time View
Update : শুক্রবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী, ২০২৩, ১১:০৮ অপরাহ্ন

জিনিয়া, বেইজিং:
খালি গ্রাম আর্ট গ্রামে রূপান্তরিত হয়। ছংছিং বি’শানের নতুন চেহারা দেখা যাচ্ছে
বি’শান অঞ্চলের উত্তরাঞ্চলের নদীর তীরে সকালের সূর্য জ্বলছে এবং সদ্য প্রস্ফুটিত রেপসিড ফুলগুলি সুগন্ধ ছাড়াচ্ছে। সোনালি ফুলের মধ্যে হাঁটলে, আপনি পুতুলের ক্ষুদ্র ভাস্কর্য, সবুজ স্থানের ভাস্কর্য এবং অন্যান্য শৈল্পিক কাজগুলি দেখতে পাবেন, যা অসীম আকর্ষণের বিষয়। গ্রামীণ শিল্প জাদুঘর এবং কফি শপে পর্যটকরা ভিড় করেন।
নতুন বছরের শুরুতে, ছিংহুয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র জো মেংজিন, যিনি সামাজিক অনুশীলন চালিয়ে যাচ্ছেন, তাঁকে গ্রামটি গভীরভাবে আকৃষ্ট করে। তাঁর কাছে: ‘এই গ্রামটি সংস্কৃতির দৃষ্টিকোণ থেকে গ্রামীণ পুনরুজ্জীবন প্রচার করে। এটি কেবল গ্রামীণ স্বাদই ধরে রাখে না, একটি শৈল্পিক পরিবেশও স্থাপন করে। এটি সংস্কৃতির শৈলীতে পূর্ণ!’
এই শৈল্পিক গ্রামটিকে জিয়াংজুন গ্রাম বলা হয়। এটি ছংছিং শহরের বি’শান অঞ্চলে অবস্থিত। এটি ছংছিং শহরের মূল শহর থেকে মাত্র আধা ঘন্টার দূরত্ব। কিন্তু কয়েক বছর আগে, এটি একটি ‘ফাঁপা গ্রাম’ ছিল, পরিবেশ ছিল নোংরা, কোনো শিল্প ছিল না এবং বিপুল সংখ্যক গ্রামবাসী কাজ করতে বাইরে যেত, গ্রামে খালি ঘরবাড়ি ফেলে রাখত।
কীভাবে ‘ফাঁপা গ্রাম’ সমস্যার সমাধান করবেন? বি’শান অঞ্চল সিছুয়ান একাডেমি অফ ফাইন আর্টস এবং ছংছিং ভাস্কর্য ইনস্টিটিউটের সঙ্গে যোগাযোগ করেছিল এবং ‘শিল্পের মাধ্যমে গ্রাম নির্মাণের’ ধারণা নিয়ে এসেছিল। অর্থাত্ শিল্প উন্নয়নের মাধ্যমে নীরব পল্লী সক্রিয় করা।
সিছুয়ান একাডেমি অফ ফাইন আর্টসের ডিজাইনারদের সহায়তায়, ২০২১ সালের প্রথম দিকে, জিয়াংজুন গ্রামের ‘আর্ট রূপান্তর’ প্রকল্প শুরু হয়, নতুন অবকাঠামো যেমন রাস্তা এবং পাইপ নেটওয়ার্ক তৈরি হয়, আর্ট যাদুঘর, আর্ট গ্যালারি, লাইব্রেরি ইত্যাদির থিম-সহ দশটি প্রধান শিল্প এলাকা তৈরি করা হয়েছে। এটি রেস্তোরাঁ, ক্যাফে, বিএন্ডবি ও খাবার এবং বাসস্থানের জন্য অন্যান্য সহায়ক সুবিধা দেয়।
হার্ডওয়্যার ও সফ্টওয়্যারগুলির পুনঃপ্রকৌশল এবং আপগ্রেডিং শুধুমাত্র স্থানীয় শৈলী রক্ষা করে না বরং জরাজীর্ণ উঠানটিকে একেবারে নতুন করে দেখায়। যা শৈল্পিক অনুপ্রেরণায় পরিপূর্ণ।
এই শিল্প বাহকের উপর নির্ভর করে শিল্প প্রদর্শনী, ভাস্কর্য প্রদর্শনী, নাট্য উৎসব, শিল্পমেলা এবং অন্যান্য শিল্পকর্ম একের পর এক এসেছে এবং স্থানীয় অবৈষয়িক সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের নৃত্য এবং অন্যান্য বৈশিষ্ট্যযুক্ত শিল্পগুলিও গ্রামের ছোট ছোট থিয়েটারের মঞ্চ স্থাপন করা হয়েছে। ‘বিভিন্ন শিল্প সম্পদ প্রবর্তন করে এবং শিল্পের গল্পগুলি ভালোভাবে তৈরি করে, এই গ্রামটি দেখার এবং থাকার ভালো ব্যবস্থা করেছে। পাশাপাশি শিল্পীদের থাকার এবং নানা প্রয়োজন মেটাতে পারে।’ বলেছেন সিছুয়ান একাডেমি অফ ফাইন আর্টসের সহযোগী অধ্যাপক ওয়াং বি, তিনি গ্রামীণ শিল্প উন্নয়নে অংশ নিয়েছিলেন।
শিল্প গ্রামকে সুন্দর করে এবং শিল্পের পুনরুজ্জীবন জোরদার করে। একটি খামারবাড়ি থেকে রূপান্তরিত একটি কফি শপে, ৫০ বছর বয়সী গ্রামবাসী গ্যান সিয়া সুয়েই উৎসাহের সঙ্গে পর্যটকদের তাদের চাহিদা সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করেন এবং দক্ষতার সঙ্গে দ্রুত এক কাপ সুগন্ধি কফি নিয়ে আসেন। গ্যান সিয়া সুয়েই প্রতিবেদককে বলেন যে, তিনি একটি কারখানায় কাজ করতেন, কিন্তু গ্রামের পরিবর্তন দেখে তিনি কফি তৈরি করতে গ্রামে ফিরে আসেন। ‘এখন আমার আয় প্রায় আগের মতোই, তবে আমি বাড়ির কাছাকাছি আছি এবং আমার পরিবারের যত্ন নিতে পারি।’
অদূরে একটি রেস্তোরাঁয় গ্রামবাসী ইয়াং নিয়ানহুয়া পর্যটকদের বিনোদন দিতে ব্যস্ত। তিনি বলেন, ‘ছটি বা উৎসবের সময়, আমরা প্রতিদিন পাঁচ থেকে ছয়শত পর্যটক পাই। যদিও খুব ব্যস্ত, আমরা খুব খুশি।’ ইয়াং নিয়ানহুয়া প্রতিবেদককে বলেন যে, কয়েক বছর আগে তিনি অন্যান্য জায়গায়ও কাজ করেছিলেন এবং দেখেছিলেন যে তার নিজের শহর আরও সুন্দর হয়ে উঠছিল, তাই সে দৃঢ়তার সঙ্গে বাড়ি ফিরে একটি যৌথ-খামারবাড়ি ভিত্তিক পর্যটন সেবা খুলল।
তিনি বলেন, ‘খামারবাড়িটি গত বছরের অগাস্ট মাসে খোলা হয়েছে, এবং বর্তমান রাজস্ব আয় চার লাখ ইউয়ানে পৌঁছেছে।
তাছাড়া এটি গ্রামবাসীদের প্রচুর পরিমাণে কৃষিপণ্য যেমন মুরগি, হাঁস ও সাইট্রাস বিক্রিতে সহায়তা করেছে।’
‘জিয়াংজুন গ্রাম একটি সুপরিচিত ‘ইন্টারনেট সেলিব্রেটি’ চেক-ইন প্লেস হয়ে উঠেছে।’ কিতাং জেলার পার্টি কমিটির সচিব ঝাং হুয়া রং বলেন, সংস্কারের পর থেকে, পুরো গ্রামটি এক লাখেরও বেশি মানুষকে অভ্যর্থনা জানায় এবং একটি দেড় মিলিয়ন ইউয়ানের বেশি অপারেটিং আয় অর্জন করে। পুরো শহরের ৪ মিলিয়ন ইউয়ানেরও বেশি পর্যটন আয় হয়েছে। ১০ জনেরও বেশি গ্রামবাসী একের পর এক ব্যবসা শুরু করার জন্য তাদের নিজ শহরে ফিরে এসেছে এবং ৮০ জনেরও বেশি গ্রামবাসী কর্মসংস্থান লাভ করেছে এবং পুরো গ্রামের মাথাপিছু বার্ষিক আয় ২০ হাজার ইউয়ান ছাড়িয়েছে।
জিয়াংজুন গ্রামে শৈল্পিক এবং প্রাকৃতিক সৌন্দর্য উভয়ই রয়েছে; তবে তা শুধু গ্রামবাসীদের ফিরে যেতে আকৃষ্ট করেনি, বরং, অনেক শহুরে বাসিন্দাকে নতুন কৃষকে পরিণত করে। প্রতিবেদক যখন লি সিয়াওমেং-এর সাথে দেখা করেন, তখন আইনজীবী যিনি ছংছিয়ের প্রধান শহরে কাজ করতেন, তিনি তার অংশীদারদের সঙ্গে বেকিং এবং ব্রুইং ওয়ার্কশপের পরিকল্পনা করছিলেন এবং জিয়াংজুন গ্রামে আরও ব্যবসা চালু করার পরিকল্পনা করেছিলেন।
তিনি বলেন, ‘আমি প্রতি সপ্তাহের অর্ধেক সময় গ্রামে থাকি। যদিও এটি ছংছিং-এর মূল শহর থেকে খুব বেশি দূরে নয়, তবে এটি একটি সত্যিকারের গ্রামাঞ্চল। আপনি পাহাড়, নদী এবং মাঠ দেখতে পারেন, পাখি এবং ফুলের গন্ধ নিতে পারেন এবং উপভোগ করতে পারেন একজন নতুন কৃষকের জীবন।’
গ্রামের পরিবর্তন দিন দিন বাড়ছে এবং গ্রামবাসীদের গ্রামের কাজে অংশগ্রহণের উত্সাহও বাড়ছে। গ্রামবাসীরা প্রশ্ন ও আবেদন তুলে ধরেন। তারা প্রাসঙ্গিক জেলা-স্তরের বিভাগ এবং শহরের নেতারা একের পর এক তাদের উত্তর দেন, যাতে গ্রামীণ পর্যটন শিল্পের উন্নয়নে যৌথভাবে পরিকল্পনা ও প্রচার করা যায়। ‘সাংস্কৃতিক পুনরুজ্জীবন গ্রামীণ পুনরুজ্জীবনের একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ। শৈল্পিক সম্পদ প্রবর্তনের মাধ্যমে, আমরা নীরব গ্রামাঞ্চলকে জাগিয়ে তুলেছি, গ্রামীণ পর্যটনের বিকাশকে উন্নীত করেছি।’ এ কথা বলেছেন বিশান অঞ্চলের পার্টি কমিটির সচিব ছিন ওয়েন মিন।
সূত্র : চায়না মিডিয়া গ্রুপ


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
Design & Developed by : BD IT HOST